প্রেমের সম্পর্কের জেরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করেন ইউসুফ আলী । মামলার ভিত্তিতে ১৯ এপ্রিল ২০২১ তারিখে তাকে গ্রেফতার করেন পুলিশ।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতার ইউসুফ আলী উপজেলার দেউলী ইউনিয়নের মেঘাখোর্দ্দ দক্ষিণপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, স্কুলছাত্রী প্রাইভেট পড়ার জন্য বাড়ি থেকে বেরুলে ওই গ্রামের বখাটে ইউসুফ আলী তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এক পর্যায়ে ৬ এপ্রিল থেকে মেয়েটিকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রাতে বাড়ির পাশে নিয়ে গিয়ে প্রায় সময় ধর্ষণ করেন। মেয়েটি বিয়ের কথা বললে ইউসুফ বিভিন্ন টালবাহানা শুরু করেন। পরে মেয়েটি এ ঘটনা তার পরিবারকে জানায়। বিষয়টি জানার পর মেয়ের বাবা বাদী হয়ে সোমবার দুপুরে থানায় মামলা করেন। ওইদিন রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে ইউসুফকে গ্রেফতার করে।

এ ঘটনায় মেয়েটির বাবার অভিযোগ, ইউসুফ বিবাহিত। তার স্ত্রী রয়েছে। বিয়ের কথা গোপন রেখে আমার মেয়েকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে তার সর্বনাশ করেছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘অভিযোগ পাওয়ার পর ইউসুফ আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

তথ্যসুত্র