ফেসবুকে পরিচয়, তারপর প্রেম এবং শেষে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করেন গোপাল মোহন্ত । ২০ অক্টোবর তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার গোপাল মহন্ত ওই মহল্লার বিশ্বজিৎ কুমার মহন্তর ছেলে। গোপাল দিনাজপুরের এসআর পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ইলেক্ট্রিকাল বিভাগের ছাত্র।

এর আগে গত সোমবার রাতে ভুক্তভোগী কিশোরীর মা বাদী হয়ে পার্বতীপুর রেলওয়ে থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করলে পুলিশ রাতেই গোপাল মহন্তকে গ্রেপ্তার করে। মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে দিনাজপুর জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ৬ মাস আগে শহরের সাহেবপাড়া মহল্লার বিশ্বজিৎ কুমার মহন্তর ছেলে গোপাল মহন্তর সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে পাশের বাবুপাড়া মহল্লার এক কিশোরীর (১৬) প্রথমে পরিচয়, পরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরবর্তীতে গোপাল মহন্তর ধর্মীয় পরিচয় জানতে পেরে ভিন্ন ধর্মের ওই কিশোরী তাদের মধ্যকার প্রেমের সম্পর্ক থেকে দূরে সরে আসে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওই যুবক গত ৯ অক্টোবর কিশোরীকে ধর্ষণের আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেয়।

পার্বতীপুর রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. এমদাদুল হক ধর্ষক গোপাল মোহন্তকে গ্রেপ্তারে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। ধর্ষক গোপাল মহন্তকে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।