অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন তরিকুল ইসলাম । অভিযোগের ভিত্তিতে ২৬ নভেম্বর ২০২০ তারিখে তাকে গ্রেফতার করেন পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকাল ৭টার দিকে নাটঘর ইউনিয়নের একইছড়া গ্রামের অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়া (১৫) শিক্ষার্থী পাশের এলাকায় প্রাইভেট পড়তে যাচ্ছিল। এসময় একই এলাকার তরিকুল ইসলাম ওই স্কুল ছাত্রীকে একটি আধা নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ে জোরপূর্বক নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ উঠে। এসময় স্থানীয় লোকজন চলে এলে তরিকুল পালিয়ে যায়। পরে ওইদিন বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তরিকুলকে উপজেলার নাটঘর ইউনিয়নের একইছড়া এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানান, প্রবাস ফেরত তরিকুলের সাথে ওই ছাত্রীর দীর্ঘ দিনের প্রেমের সর্ম্পক ছিল। বুধবার ওই প্রেমের টানেই যুগল জুটি সুযোগ পেয়ে অনৈতিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় স্থানীয় যুবকরা ওই বিল্ডিংয়ের ভেন্টিলেটার দিয়ে তাদের ভিডিও করে। পুলিশ ওই ভিডিওটি জব্দ করে।

 

নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুর রশিদ বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ এনে স্কুল ছাত্রীর মা রাতেমফ নবীনগর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন মামলা দায়ের করেন। ওই স্কুল ছাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় ধর্ষণের মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তার করে বৃহস্পতিবার আদালতে সোর্পদ করা হয়েছে।

তথ্যসুত্র