শাক তুলে দেবার কথা বলে প্রতিবন্ধী বোনকে ধর্ষণ করেন মমিন মিয়া । পুলিশ বর্তমানে মমিন মিয়া কে গ্রেফতারের অভিযান চালাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার মেয়েটিকে কিশোরগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে বুধবার বিকেলে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার বৌলাই ইউনিয়নের পাটধা দক্ষিণ কুড়েরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সোমবার বিকেলে শাক তুলে দেয়ার কথা বলে এবং টাকার লোভ দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী পাটধা উত্তর কুড়েরপাড় গ্রামের মহির উদ্দিনের ছেলে মমিন মিয়া মেয়েটিকে বাড়ির পাশে একটি মৎস্যখামারের পরিত্যক্ত ঘরে ডেকে নেয়। এ সময় হাত ও মুখ চেপে জোর করে ধর্ষণ করে মেয়েটিকে।

পরে মেয়েটির চিৎকারে পালিয়ে যায় মমিনুল। এ সময় মেয়েটিকে উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় মেয়েটির মা বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ মডেল থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক জানান, মেয়েটির স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত মমিনকে আটকের চেষ্টা চলছে।