৮ বছর বয়সী শিশুকে ধানক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণ করেন মো. কালাম । ধর্ষণরত অবস্থায় ধর্ষককে আটকের পর মারপিট করে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা।

মাত্র ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। শনিবার সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে। আটক ধর্ষক মো. কালাম জানপুর মধ্যপাড়া গ্রামের মৃত মেসের আলী। ধর্ষণের শিকার শিশু মেয়েটিও একই এলাকার বাসিন্দা ও প্রতিবেশী।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন নারী জানান, ধর্ষক কালাম বিল থেকে ওই মেয়েটিকে শাপলা ফুল তুলে দিচ্ছিল। এক পর্যায়ে সে মেয়েটিকে হাত ধরে কথা বলতে বলতে ধানক্ষেতে নিয়ে যায়। ১৫-২০ মিনিট দু’জনকে দেখা না যাওয়ায় তাদের সন্দেহ হয়। পরে ধানক্ষেতে গিয়ে দু’জনকে বিবস্ত্র অবস্থায় দেখা যায়। এ সময় ধর্ষক লোকটিকে আটক করা হলে সে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করে ছেড়ে দেয়ার জন্য কাকুতি-মিনতি করে। পরে জনগণ দু’জনকে আটকে রেখে পুলিশে সংবাদ দেয়।

ধর্ষণের শিকার শিশু মেয়েটি জানায়, ৫০ টাকা দেয়ার কথা বলে ধানক্ষেতে নিয়ে আসছিল।

সদর থানার উপ-পরিদর্শক জয়নুল আবেদীন জানান, স্থানীয়রা ধর্ষক কালামকে আটকে থানায় সংবাদ দেয়। পরে ঘটনাস্থল পৌঁছে ধর্ষক কালামকে আটক করা হয়েছে। ধর্ষক কালাম টাকার লোভ দেখিয়ে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত করা হচ্ছে। থানায় নেয়ার পর মামলা রেকর্ড করা হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।