১১ বছরের কিশোরীকে অন্যদের পাহারায় ধর্ষণ করেন মো. নাছির । ২২ অক্টোবর তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ছাত্রীর গ্রামের বাড়ি থেকে পড়াশোনা করে। করোনার কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় গত ৫ মাস যাবৎ সে তার বাবা-মায়ের সঙ্গে সিদ্ধিরগঞ্জে বসবাস করছিল। বুধবার (২১ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে ৩টার সময় প্রতিবেশী অভিযুক্ত মো. নাছিরের বাড়ির সামনে খেলাধুলা করার সময় শিশুটিকে জোর করে তার ঘরে নিয়ে যায়৷ পরে এনায়েত হোসেনের সহযোগিতায় শিশুটিকে ধর্ষণ করে নাছির৷ ধর্ষণের সময় ঘরের দরজার সামনে পাহারারত অবস্থায় ছিল অভিযুক্ত উজ্জ্বল ও আরিফুল ইসলাম৷ চারজনকেই আসামি করে থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগীর শিশুর মা ৷

জবানবন্দির বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশ এএসআই আজমল হোসেন বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার দায়েরকৃত নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার ১১ বছরের ভিকটিম আদালতে ২২ ধারা জবানবন্দি প্রধান করেছে।