সাবেক স্ত্রী এর বাবার বাড়িতে এসে ধর্ষণের চেষ্টা করেন মো. সুজন । ভুক্তভোগীর মামলার ভিত্তিতে ১০ ই এপ্রিল ২০২১ তারিখে গ্রেফতার করেন পুলিশ।

চাটখিল থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম জানান, আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার দুপুরে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে সুজন তার সাবেক স্ত্রীর বাবার বাড়িতে এসে অসদাচরণ করেন এবং এক পর্যায়ে সাবেক স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। পরে ওই নারীর চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে অভিযুক্ত সুজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে শনিবার সকালে চাটখিল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজহার ও ভুক্তভোগী নারী সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালে পারিবারিকভাবে রামগঞ্জ উপজেলার লাতু মিয়ার ছেলে সুজনের সাথে তার বিয়ে হয়। তাদের ৮ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। যৌতুকসহ পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সুজন প্রায়ই তার সাথে খারাপ ব্যবহার করতেন।

এক পর্যায়ে সুজন বিদেশে চলে যান। বিদেশে যাওয়ার পর তিনি স্ত্রী-সন্তানের সাথে যোগাযোগ এবং তাদের ভরণপোষণ বন্ধ করে দেন। ২০১৯ সালে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে তার স্ত্রী তাকে ডিভোর্স দিয়ে পারিবারিক আদালতে মামলা করেন। পরবর্তীতে তিনি দেশে এসে অন্যত্র বিয়ে করেন। কিন্তু সুজন তার কাবিননামার টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান এবং প্রায়ই মামলা তুলে নিতে হুমকি দিতে থাকেন।

তথ্যসুত্র