বাড়িতে একা পেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী স্কুলছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন রাব্বি রুবেল । লজ্জায়, অপমানে আত্নহত্যা করেছে সেই স্কুলছাত্রী। এ বিষয়ে এখনও কোন অভিযোগ দায়ের হয়নি।

নিহত স্কুলছাত্রী সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বর থানার চরজুবলী ইউনিয়নের শহীদ জয়নাল আবেদীন মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। সে চরজুবলী ইউনিয়নের চর জিয়াউদ্দিনের মো. আলমগীর হোসেনের মেয়ে।

নিহতের চাচা ফিরোজ শাহ জানান, ফজলে রাব্বি রুবেল (১৯) নামে একটি বখাটে রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল তিনটায় তার ভাতিজিকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। এ অপমান সইতে না পেরে ওইদিন সন্ধ্যা ৭টার সময় সে নিজের বাড়িতে বিষপান করে।

পরে তাকে সুবর্ণচর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখান থেকে তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। সেখানে সোমবার (১ মার্চ) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

মেয়েটির বাবা মো. আলমগীর হোসেন জানান, তিনি গাজীপুরের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। তার তিন মেয়ে ও দুই ছেলে। রোববার তার স্ত্রী বড় মেয়েকে নিয়ে তার কাছে (গাজীপুর) যান। ছোট মেয়ের কাছে তার নানিকে রেখে গেলেও তিনি (নানি) ওইদিন দুপুরে একটি কাজে পার্শ্ববর্তী মান্নান নগরে গেলে বখাটে রুবেল একা পেয়ে তাকে ধর্ষণ করে।

মো. আলমগীর আরও জানান, অভিযুক্ত ফজলে রাব্বি রুবেল জেলার সদর উপজেলার পাক কিশোরগঞ্জের শল্লা গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। সে বেশ কিছুদিন তার (আলমগীরের) দোকানের কর্মচারী ছিল। সেই সুবাদে তার পরিবারের সদস্যদের কাছে পরিচিত ছিল রুবেল।

নোয়াখালী সদর থানার (সুধারাম) ওসি শাহেদ উদ্দিন ময়নাতদন্তের জন্য লাশ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য চরজব্বর থানায় বলা হয়েছে।

সুবর্ণচরের চরজব্বর থানার ওসি মো. জিয়াউল হক বলেন, স্কুলছাত্রীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হলেও কোনো অভিযোগ এখনও পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তথ্যসুত্র