৫ম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে কাঠমিস্ত্রি সুজন হাওলাদার । ২৫ নভেম্বর ২০২০ তারিখে তাকে গ্রেফতার করেন পুলিশ। তিনি মোস্তফা হাওলাদারের ছেলে।

ধর্ষণের শিকার মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রাতেই মোল্লাহাট থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। সুজন হাওলাদার উপজেলার নতুন ঘোষগাতী গ্রামের মোস্তফা হাওলাদারের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মেয়ের মা ১১ মাস আগে আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা গেছে , বাবা বাড়িতে না থাকায় সেই ফাঁকে খাবারের প্রলোভন দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি বাড়িতে ডেকে নিয়ে সুজন হাওলাদার মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। মেয়েটির ডাক চিৎকারে আমরা এসে তাকে উদ্ধার করি এবং ধর্ষককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করি। আমরা এ ঘটনায় ধর্ষক সুজন হাওলাদারের দ্রুত দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানাই।

মোল্লাহাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী গোলাম কবীর জানান, ধর্ষণের শিকার ৫ম শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন এবং ধর্ষক সুজন হাওলাদারকে আটক করা হয়েছে।

তথ্যসুত্র