বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণ করেন সুমন খাঁ । সামলার ভিত্তিকে ২৭ এপ্রিল ২০২১ তারিখে তাকে গ্রেফতার করেন পুলিশ।

সুমন খাঁ উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের দক্ষিণ আমইন হঠাৎপাড়া এলাকার তসলিম উদ্দিন খাঁর ছেলে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, করোনা মহামারীর কারণে চাকরি চলে যাওয়ায় নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন ওই তরুণী। এ সুযোগ নিয়ে মুদি দোকানি সুমন খাঁ ওই তাকে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দেন। এতে রাজী না হওয়ায় নানাভাবে তাকে উত্ত্যক্ত করতে থাকেন ওই ব্যক্তি। একপর্যায়ে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে শহরতলীর দুবলাগাড়ী বাজারস্থ তারেক হাসানের বাড়িতে নিয়ে একাধিকবার ওই গার্মেন্টসকর্মীকে ধর্ষণ করেন।

শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে। নির্যাতিতা তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তথ্যসুত্র