রাস্তা থেকে তুলে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন হৃদয়, জহিরুল এবং হৃদয় হাওলাদার । ভুক্তভোগীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তিনজনকে আটক করে পুলিশে দেন।

ধর্ষক হৃদয়-জহিরুল-হৃদয় – ধর্ষক ডাটাবেজ

গ্রেফতাররা হলেন- ফতুল্লা থানার শাসনগাঁও চাঁদনী হাউজিংয়ের মাসুমের বাড়ীর ভাড়াটিয়া হৃদয়(২৩), একই এলাকার হামিদের বাড়ীর ভাড়াটিয়া জহিরুল (২৪) ও মাসুমের বাড়ীর ভাড়াটিয়া হৃদয় হাওলাদার (২০)।

ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর জানান, প্রতিদিন গার্মেন্টস থেকে বের হওয়ার সময় তার স্বামী সঙ্গে থাকতেন। তবে বৃহস্পতিবার স্বামী না আসায় একা একা বাসায় ফিরছিলেন ওই গার্মেন্টস কর্মী। এরপর ভোলাইল মরাখাল এলাকায় পৌঁছালে তিন যুবক তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তিনজনকে আটক করে পুলিশে দেন। আটকদের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী তরুণী থানায় মামলা করেছেন। তাদেরকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

তথ্যসুত্র